কক্সবাজারে ইয়াবা সেবনে তরুণীর মৃত্যু, প্রেমিক আটক !

প্রেমিকের সঙ্গে কক্সবাজারে ঘুরতে গিয়ে স্বর্ণা রশিদ নামের এক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত তরুণী রাজধানী ঢাকার কোতোয়ালি চকবাজারের সাত নম্বর বেগম বাজার এলাকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী হারুন উর রশিদ পাপ্পুর মেয়ে। সে ব্রিটিশ কাউন্সিলের ছাত্রী বলেও জানা যায়। এদিকে অতিরিক্ত ইয়াবা সেবনের ফলে তরুণীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেন কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ডা. শাহীন। মৃত্যুর ঘটনায় তরুণীর কথিত প্রেমিক ঢাকার ২২ নম্বর সিদ্ধেশ্বরী রোডের মনিমান টাওয়ারের বাসিন্দা আলী রেজা খানের ছেলে ওয়ালী আহমদ খানকে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার সকালে স্বর্ণাসহ ১১ জনের একটি দল কক্সবাজার হোটেল জামানে কক্ষ ভাড়া নেয়। সন্ধ্যার দিকে সৈকত থেকে হোটেলে ফিরে এসে মাদক সেবন করে তারা। মাদক সেবনের একপর্যায়ে স্বর্ণা রশিদ অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপালে নেওয়া হয়। সেখানে তরুণীর মৃত্যু হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কক্সবাজার থানায় পুলিশকে সংবাদ দেয়। এদিকে পুলিশ আসার আগেই বাকি ১০ জন সটকে পড়ে হাসপাতাল থেকে। পরে ওয়ালী আহমদ খান নামের এক যুবককে আটক করে পুলিশ। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

কক্সবাজার হাসপাতালের ডা. শাহীন জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার পর স্বর্ণাকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ভর্তি করার কথা বললে তার সহপাঠীরা ঢাকায় ফিরে যাবার কথা বলে ভর্তি না করেই ফিরে যান। আধ ঘণ্টা পরে রাত সাড়ে নয়টার দিকে মেয়েটিকে নিয়ে আবারও হাসপাতালে আসেন তারা। ততক্ষণে স্বর্ণা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। প্রাথমিকভাবে অতিরিক্ত ইয়াবা সেবনের ফলে তরুণীর মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। শনিবার বিকেলে তরুণীর ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার মডেল থানার ওসি (অপারেশন) মো. ইয়াছিন।